ত্রিপুরা ফোকাস

No result ..

বিনোদন

ফেসবুক বিভ্রাট

যেন কল্পবিজ্ঞানের কাহিনী। মানুষের অবাধ্য হয়ে উঠল যন্ত্র! শুনতে অবিশ্বাস্য মনে হলেও সত্যি।‌ তাই কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করা বন্ধ করে দিল ফেসবুক। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বিশেষজ্ঞ ইলন মাস্ক এর আগেই ফেসবুকে এই প্রযুক্তির ব্যবহার নিয়ে সতর্ক করেছিলেন। জানিয়েছিলেন ফেসবুক ওয়েবসাইটের চ্যাটবুটস বিভাগ কিছুদিনের মধ্যেই প্রযুক্তিবিদদের কথা অমান্য করতে পারে। সেই আশঙ্কাই সত্যি হয়। চ্যাটবুটস নিজের খেয়ালখুশি মতো আচরণ করতে শুরু করে। তারপরই ফেসবুক এআই পরিষেবা বন্ধ করে দেয়। তারা জানিয়েছে, সার্ভার থেকে যে নির্দেশ দেওয়া হচ্ছিল, বারবার তার ভাষা বদলে দিচ্ছিল চ্যাটবুটস। ইংরাজির বদলে ব্যবহার করছিল তার ইচ্ছামতো নিজস্ব ভাষা‌। তারপরে আরও একধাপ এগিয়ে ইংরেজির বদলে নিজের তৈরি করা ভাষা এটি ব্যবহার করতে শুরু করে। মজার কথা হল, যে ভাষা এআই ব্যবহার করছে তা মানুষের পক্ষে বোঝা সম্ভব নয়। আর  কোনও কম্যান্ড দেওয়া হলেও তা মানতে অস্বীকার করছে চ্যাটবুটস। গত জুন মাস থেকেই প্রথম এই বিষয়টি সামনে আসে। 

তারকা মেয়ে কি ধর্ম পরিবর্তন করেছে! অন্ধকারে বিখ্যাত অভিনেতা কমল হাসান

দেশের বেশ কিছু সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয় যে বলিউডের এক উঠতি অভিনেত্রী তাঁর ধর্ম পরিবর্তন করেছেন। আশ্চর্যের বিষয়, তাঁর বাবা সে সম্পর্কে কিছু জানতেন না। এবং ঘটনার সত্যতা যাচাই করতে তিনি টুইট করে জানতে চান মেয়ের কাছে! অক্ষরা হাসান। দক্ষিণ, তথা বলিউডের ট্যালেন্টেড অভিনেতা কমল হাসান ও এক সময়ের সুন্দরী অভিনেত্রী সারিকার ছোট কন্যা অক্ষরা। এমনিতে তিনি নিজেকে নাস্তিক বলেই পরিচয় দেন। কিন্তু, গতকাল বেশ কিছু সংবাদমাধ্যমে এক খবর প্রকাশিত হয় যে অক্ষরা হাসান বৌদ্ধ হয়ে গিয়েছেন। মেয়ের এই কীর্তির কথা বাবা কমল জানতেন না। তাই একটি টুইট করে সত্যিটা জানতে চান এই অভিনেতা। ‘বাপুজি’ কমলকে উত্তরে অক্ষরা জানান যে, তিনি এখনও নাস্তিকই আছেন। তবে, বৌদ্ধ ধর্মের নীতি তাঁর বেশ পছন্দের।

Read more...

রুপোলি পর্দার দুনিয়ায় দু’দণ্ড সময় কাটানোর সোনালি সুযোগ

দেশের প্রথম ফিল্ম ট্যুরিজম। রুপোলি পর্দার দুনিয়ায় দু’দণ্ড সময় কাটানোর সোনালি সুযোগ।একেই বলে ‘বাহুবলী’ এফেক্ট! তেলুগু প্রোডাকশনের ছবি গোটা দুনিয়ায় প্রায় ২০০০ কোটি টাকার লক্ষ্যমাত্রা ছোঁয়ার পরে নতুন করে সেজে উঠল তামিল ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি। দর্শকের জন্য খুলে দিল অভিনব সুযোগের সিংহদ্বার। পরিবেশনায় ইন্ডিউড ফাউন্ডেশন।সিংহদ্বারই বটে! বাহুবলী-র সিকোয়েল বানানো তো হবেই, সঙ্গে বাহুবলী-র মাহিষমতী-সহ অন্য সব লোকেশন, গ্রাফিক স্টুডিও দেখার সুযোগ করে দেওয়া হল তামাম ভ্রমণপিপাসুদের জন্য। বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত গাইড থাকবেন সঙ্গে, যিনি শোনাবেন শ্যুটিং স্পটের মাহাত্ম্য। এমনকী ভাগ্য ভাল থাকলে দেখাও পেয়ে যেতে পারেন প্রভাস, অনুষ্কা শেট্টি কিংবা রম্যার সঙ্গেও! শুধু ভ্রমণের আনন্দই নয়, আরও বেশি জানার আগ্রহও উস্কে দেবে এই ট্যুরিজম।

Read more...

প্রভাসের সাহো-তে অভিনয় করবেন বলিউডের এক অভিনেতা

দক্ষিণ ভারতে প্রভাস জনপ্রিয় আগেই ছিলেন। কিন্তু বাহুবলী এবং বাহুবলী ২-এর পর থেকে গোটা দেশ এখন প্রভাসের জন্য পাগল। তাঁর ফ্যানের সংখ্যায় এখন চমকে যাচ্ছেন দেশের তামাম সেলিব্রিটিরা। সেই প্রভাসের পরবর্তী ফিল্ম সাহো নিয়ে এখন থেকেই উত্সাহ তুঙ্গে তাঁর অনূরাগীদের মধ্যে। প্রসঙ্গত, সাহোর পরিচালক সুজিত। আর এই ফিল্মেও প্রভাসের বিপরীতে অভিনয় করতে দেখা যাবে অনুষ্কা শেঠ্ঠিকে।তবে, ডিএনএ সূত্রে জানা যাচ্ছে, প্রভাসের সাহোতে দেখা যেতে চলেছে বলিউডের নয়ের দশকের এক অভিনেতাকেও। ভাবছেন কে তিনি? তিনি চাঙ্কি পাণ্ডে। সম্প্রতি বেশ কিছু বলিউড ফিল্মে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে চাঙ্কি পাণ্ডেকে। তার বেশিরভাগ চরিত্রেই কমেডি করতে হয়েছে চাঙ্কি পাণ্ডেকে। তবে, বিদ্যা বালান অভিনীত বেগম জানে সিরিয়াস চরিত্রে অভিনয়ই করেছিলেন চাঙ্কি। এখন দেখা যাক, প্রভাসের সাহোতে কেমন চরিত্রে অভিনয় করেন চাঙ্কি পাণ্ডে।

বর্ণবৈষম্যের অভিযোগ আনলেন অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন

আবারও বর্ণবৈষম্যের অভিযোগ উঠল বলিউডে। এবার ঘুরিয়ে অভিযোগ আনলেন অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি। সোমবার রাতে এক টুইটে তিনি লেখেন, "ধন্যবাদ, এটা মনে করিয়ে দেওয়ার জন্যযে আমি কালো এবং আমাকে দেখতে ভআলো নয়। কিন্তু আমি পরোয়া করি না'। কিন্তু কার বিরুদ্ধে নওয়াজের এই প্রতিবাদ? দেখুন, বক্স অফিসে। হঠাত্‍ই টুইটারে নোটিফিকেশনে এল নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির টুইট। তাতে লেখা, "THANK YOU FOR MAKING ME REALISE THAT I CANNOT BE PAIRED ALONG WITH THE FAIR AND HANDSOME BECAUSE I AM DARK AND NOT GOOD LOOKING, BUT I NEVER FOCUS ON THAT'.

Read more...

ভিডিও গ্যালারী

  ত্রিপুরা ফোকাস  । © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ত্রিপুরা ফোকাস ২০১০ - ২০১৭

সম্পাদক : শঙ্খ সেনগুপ্ত । প্রকাশক : রুমা সেনগুপ্ত

ক্যান্টনমেন্ট রোড, পশ্চিম ভাটি অভয়নগর, আগরতলা- ৭৯৯০০১, ত্রিপুরা, ইন্ডিয়া ।
ফোন: ০৩৮১-২৩২-৩৫৬৮ / ৯৪৩৬৯৯৩৫৬৮, ৯৪৩৬৫৮৩৯৭১ । ই-মেইল : This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.