ত্রিপুরা ফোকাস

বিনোদন

রুপোলি পর্দার দুনিয়ায় দু’দণ্ড সময় কাটানোর সোনালি সুযোগ

দেশের প্রথম ফিল্ম ট্যুরিজম। রুপোলি পর্দার দুনিয়ায় দু’দণ্ড সময় কাটানোর সোনালি সুযোগ।একেই বলে ‘বাহুবলী’ এফেক্ট! তেলুগু প্রোডাকশনের ছবি গোটা দুনিয়ায় প্রায় ২০০০ কোটি টাকার লক্ষ্যমাত্রা ছোঁয়ার পরে নতুন করে সেজে উঠল তামিল ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি। দর্শকের জন্য খুলে দিল অভিনব সুযোগের সিংহদ্বার। পরিবেশনায় ইন্ডিউড ফাউন্ডেশন।সিংহদ্বারই বটে! বাহুবলী-র সিকোয়েল বানানো তো হবেই, সঙ্গে বাহুবলী-র মাহিষমতী-সহ অন্য সব লোকেশন, গ্রাফিক স্টুডিও দেখার সুযোগ করে দেওয়া হল তামাম ভ্রমণপিপাসুদের জন্য। বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত গাইড থাকবেন সঙ্গে, যিনি শোনাবেন শ্যুটিং স্পটের মাহাত্ম্য। এমনকী ভাগ্য ভাল থাকলে দেখাও পেয়ে যেতে পারেন প্রভাস, অনুষ্কা শেট্টি কিংবা রম্যার সঙ্গেও! শুধু ভ্রমণের আনন্দই নয়, আরও বেশি জানার আগ্রহও উস্কে দেবে এই ট্যুরিজম।

Read more...

প্রভাসের সাহো-তে অভিনয় করবেন বলিউডের এক অভিনেতা

দক্ষিণ ভারতে প্রভাস জনপ্রিয় আগেই ছিলেন। কিন্তু বাহুবলী এবং বাহুবলী ২-এর পর থেকে গোটা দেশ এখন প্রভাসের জন্য পাগল। তাঁর ফ্যানের সংখ্যায় এখন চমকে যাচ্ছেন দেশের তামাম সেলিব্রিটিরা। সেই প্রভাসের পরবর্তী ফিল্ম সাহো নিয়ে এখন থেকেই উত্সাহ তুঙ্গে তাঁর অনূরাগীদের মধ্যে। প্রসঙ্গত, সাহোর পরিচালক সুজিত। আর এই ফিল্মেও প্রভাসের বিপরীতে অভিনয় করতে দেখা যাবে অনুষ্কা শেঠ্ঠিকে।তবে, ডিএনএ সূত্রে জানা যাচ্ছে, প্রভাসের সাহোতে দেখা যেতে চলেছে বলিউডের নয়ের দশকের এক অভিনেতাকেও। ভাবছেন কে তিনি? তিনি চাঙ্কি পাণ্ডে। সম্প্রতি বেশ কিছু বলিউড ফিল্মে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে চাঙ্কি পাণ্ডেকে। তার বেশিরভাগ চরিত্রেই কমেডি করতে হয়েছে চাঙ্কি পাণ্ডেকে। তবে, বিদ্যা বালান অভিনীত বেগম জানে সিরিয়াস চরিত্রে অভিনয়ই করেছিলেন চাঙ্কি। এখন দেখা যাক, প্রভাসের সাহোতে কেমন চরিত্রে অভিনয় করেন চাঙ্কি পাণ্ডে।

বর্ণবৈষম্যের অভিযোগ আনলেন অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন

আবারও বর্ণবৈষম্যের অভিযোগ উঠল বলিউডে। এবার ঘুরিয়ে অভিযোগ আনলেন অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি। সোমবার রাতে এক টুইটে তিনি লেখেন, "ধন্যবাদ, এটা মনে করিয়ে দেওয়ার জন্যযে আমি কালো এবং আমাকে দেখতে ভআলো নয়। কিন্তু আমি পরোয়া করি না'। কিন্তু কার বিরুদ্ধে নওয়াজের এই প্রতিবাদ? দেখুন, বক্স অফিসে। হঠাত্‍ই টুইটারে নোটিফিকেশনে এল নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির টুইট। তাতে লেখা, "THANK YOU FOR MAKING ME REALISE THAT I CANNOT BE PAIRED ALONG WITH THE FAIR AND HANDSOME BECAUSE I AM DARK AND NOT GOOD LOOKING, BUT I NEVER FOCUS ON THAT'.

Read more...

কপালে তরোয়ালের কোপ, গুরুতর জখম অভিনেত্রী কঙ্গনা

'মনিকর্নিকা'র শুটিং সেটে গুরুতর জখম হলেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানৌত। হায়দরাবাদে চলছে শুটিং। একটি যুদ্ধের দৃশ্যায়ন শ্যুট করার সময় টাইমিংয়ের ভুলে তরোয়াল আঘাত সোজা গিয়ে কঙ্গনার কপালে লাগে। সঙ্গে সঙ্গেই দুই ভুরুর মাঝে গভীর ক্ষত তৈরি হয়। রক্ত ঝরতে শুরু করে। সঙ্গে সঙ্গে নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় অভিনেত্রীকে। ১৫টি সেলাই পরে ক্ষতস্থানে।ক্ষত গভীর। আরও এক সপ্তাহ অভিনেত্রীকে পর্যবেক্ষণে রাখা হবে বলে, হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, পরিচালক ডামি নিয়ে শ্যুট করার কথা বললেও তা এড়িয়ে যান অভিনেত্রী। অল্পের জন্য বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পান কঙ্গনা। দাঁতে দাঁত চেপে প্রবল যন্ত্রণা সহ্য করতে দেখা যায় বলিউডের 'কুইন'কে। প্রসঙ্গত 'মনিকর্নিকা'য় ঝাঁসির রানি লক্ষ্মীবাঈয়ের ভূমিকায় অভিনয় করছেন কঙ্গনা।

'জগ্গা জাসুস' অভিনেত্রী বিদিশা বেজবরুয়ার রহস্যমৃত্যু, গ্রেফতার স্বামী

মুম্বইয়ের গুরুগ্রাম থেকে ঝুলুন্ত অবস্থায় দেহ উদ্ধার আসামের জনপ্রিয় অভিনেত্রী তথা গায়িকা বিদিশা বেজবরুয়ার। সম্প্রতি অনুরাগ বসু পরিচালিত 'জগ্গা জাসুস' সিনেমার কুশীলব বিদিশা বেজবরুয়ার রহস্যমৃত্যুতে গ্রেফতার করা হয়েছে তাঁর স্বামীকে। সম্পর্কের টানাপড়েনেই আত্মহত্যা করেছেন বিদিশা, প্রাথমিক তদন্তে পুলিসের অনুমান এমনই।গুরুগ্রামের ডেপুটি কমিশনার অব পুলিস (পূর্ব) দীপক সাহারন জানিয়েছেন, "নিজের ভাড়া বাড়িতেই সিলিং থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় বিদিশা বেজবরুয়ার দেহ উদ্ধার করা হয়েছে"। ডেপুটি পুলিস কমিশনার জানিয়েছেন, পুলিসকে বিদিশা বেজবরুয়ার ঠিকানা দিয়েছেন তাঁর বাবা। মেয়েকে অনেকবার ফোন করার পরও যখন পাননি, তখনই সন্দেহ হয়েছিল বিদিশার বাবার। এরপরই নিকটস্থ থানার সঙ্গে যোগাযোগ করেন বিদিশার বাবা। ঠিকানা নিয়ে বিদিশার ভাড়া বাড়িতে যেতেই সেখানে তাঁকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিস। ভিনেত্রী বিদিশা বেজবরুয়ার রহস্যমৃত্যুতে ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে পুলিস। এই ঘটনায় পুলিস বিদিশা বেজবরুয়ার স্বামীর সঙ্গে কথা বলে তাঁর কথা রেকর্ড করতে পারে বলেও সূত্রের খবর।

ভিডিও গ্যালারী

  ত্রিপুরা ফোকাস  । © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ত্রিপুরা ফোকাস ২০১০ - ২০১৭

সম্পাদক : শঙ্খ সেনগুপ্ত । প্রকাশক : রুমা সেনগুপ্ত

ক্যান্টনমেন্ট রোড, পশ্চিম ভাটি অভয়নগর, আগরতলা- ৭৯৯০০১, ত্রিপুরা, ইন্ডিয়া ।
ফোন: ০৩৮১-২৩২-৩৫৬৮ / ৯৪৩৬৯৯৩৫৬৮, ৯৪৩৬৫৮৩৯৭১ । ই-মেইল : This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.