ত্রিপুরা ফোকাস

খেলা

'রেকর্ডের জন্য ক্রিকেট খেলেনি' : ঝুলন

বিশ্বরেকর্ড গড়ে ফিরলেন ঝুলন গোস্বামি। ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক ঝুলন জানালেন, অস্ট্রেলীয় পেসার প্যাট্রিকের রেকর্ড ভাঙতে গিয়ে তিনি বুঝেছেন রেকর্ডের কথা মাথায় রেখে খেললে আখেড়ে পারফরম্যান্সের অবনতি হয়।  তবে বিশ্বের সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক হওয়ার পর পুরস্কার হিসেবে পেয়েছেন সচিন তেন্ডুলকরের শুভেচ্ছা। নিজের ক্রিকেটীয় আইডলের কাছ থেকে এর আগে ব্যাট পুরস্কার পেয়েছিলেন। কিন্তু বিশ্বরেকর্ড গড়ার পর এই প্রাপ্তি জীবনের সবচেয়ে বড় পুরস্কার বলে জানিয়ে দিলেন ঝুলন।ঝুলনকে মোবাইলে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্যাট্রিকও। তবে এখন সব কিছু ভুলে মাস্টার ব্লাস্টারের শুভেচ্ছায় অনুপ্রাণিত ঝুলন দেশকে বিশ্বকাপ এনে দিতে মরিয়া।

বিসিসিআই-এর কাছে টেস্ট ক্রিকেটারদের টাকা বাড়ানোর দাবি

বিসিসিআই-এর কাছে টেস্ট ক্রিকেটারদের টাকা বাড়ানোর দাবি জানালেন বিরাট কোহলি। বোর্ডের প্রশাসনিক কমিটির কাছে ত্রিস্তরীয় গ্রেডেশনে  টেস্ট ক্রিকেটারদের টাকা সবচেয়ে বেশি করার প্রস্তাব দিয়েছেন অলিন কুম্বলেও। রবিবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভারত অধিনায়ক তার প্রস্তাব পেশ করেন প্রশাসনিক কমিটির কাছে। তবে এই প্রস্তাব কতটা কার্যকর করতে পারবে বিসিসিআই তা নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে। কারন ছোট ফরম্যাটের ক্রিকেটে খেলা ক্রিকেটারদের মধ্যে একমাত্র বিরাট কোহলি ও আর অশ্বিন ছাড়া কোনও ক্রিকেটারই বিরাট টাকা পান না।এদিকে অনিল কুম্বলেও তার মাইনে বাড়িয়ে আট কোটি টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছেন। তবে গোল বেধেছে অন্য জায়গায়। বিরাট,কুম্বলের দেওয়া এই প্রস্তাব নিয়েও বোর্ড কর্তা ও প্রশাসনিক কমটির মধ্যে তৈরি হয়েছে দ্বিমত।

বিধ্বস্ত কেকেআর

হাইভোল্টেজ এরকম একটা ম্যাচ যে শেষ পর্যন্ত এতটা একপেশে হয়ে পড়বে, সত্যি বলতে কী, কল্পনাও করতে পারিনি। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কাছে কলকাতা নাইট রাইডার্স হারল বললেও কম বলা হয়। বরং বলা উচিত, বিধ্বস্ত হল। প্রথমে ব্যাট করে সাত বল বাকি থাকতে ১০৭ রানে শেষ হয়ে গেল কেকেআর। মুম্বই হেসেখেলে লক্ষ্যে পৌঁছে গেল মাত্র চার উইকেট হারিয়ে। প্রায় ছয় ওভার বাকি থাকতে। ফাইনালে রোহিত শর্মাদের লড়াই মহেন্দ্র সিংহ ধোনিদের সঙ্গে।

কী কারণে কেকেআরের এরকম বিপর্যয়? প্রথমেই বলব গৌতম গম্ভীরের ভুলে ভরা দল নির্বাচনের কথা। ইউসুফ পাঠানকে বসানোর কোনও যুক্তি খুঁজে পেলাম না। মানছি ইউসুফ রান পাচ্ছিল না। কিন্তু তাই বলে এরকম মন্থর পিচে ওকে খেলাবে না! এই ধরনের উইকেটে আর স্পিনারদের বিরুদ্ধেই তো ইউসুফ বরাবর ভাল খেলে। তার চেয়েও বড় কথা, যে ছেলেটাকে টুর্নামেন্টের সমস্ত ম্যাচে খেলালে, হঠাৎ করে কোয়ালিফায়ারের মতো এত গুরুত্বপূর্ণ একটা ম্যাচে তাকে বসিয়ে দিলে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ম্যাচ উইনারদের দলে রাখতেই হবে। সে যতই অফ ফর্মে থাকুক না কেন। অবাক হয়েছি কুলদীপ যাদবের পরিবর্তে পীযূষ চাওলাকে খেলানোর সিদ্ধান্ত দেখেও। কুলদীপ ফর্মে থাকা বোলার। এরকম মন্থর পিচে সোনা ফলাতে পারত।

Read more...

ক্রিকেটারদের আরও বেশি টাকা দিতে হবে,দাবি পেশ করবেন বিরাট

ক্রিকেটারদের টাকা বাড়ানোর দাবিতে বিসিসিআই-এর প্রশাসনিক কমিটির সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি।  অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটারদের সঙ্গে তুলনা করে কোহলির দাবি ভারতীয় ক্রিকেটারদের আরও বেশি টাকা পাওয়া উচিত। আইপিএল ফাইনালের দিন এই আর্থিক ইস্যুতেই তিনি বোর্ডের প্রশাসনিক কমিটির সঙ্গে বৈঠক করবেন। সেখানে গ্রেড এ-র ক্রিকেটারদের টাকা বাড়ানোর প্রস্তাব দেবেন। পাশাপাশি যারা তিন ফরম্যাটেই খেলছেন তারা যেন অন্যদের থেকে অর্থ বেশি পান সেদিকে নজর দেওয়ার প্রস্তাব দেবেন। সঙ্গে তাঁর দাবি চেতেশ্বর পূজারার মতন ক্রিকেটার যারা টেস্টে দেশের জন্য ঘাম ঝরাচ্ছেন অথচ আইপিএলে নেই তারা যেন আর্থিক দিক থেকে বঞ্চিত না হন।

অনুর্ধ্ব সতেরো বিশ্বকাপের ফাইনাল যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে

মাত্র আটচল্লিশ টাকা খরচ করলেই যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে বসে দেখা যাবে অনুর্ধ্ব সতেরো বিশ্বকাপের ফাইনাল। ভারতের মাটিতে হতে চলা প্রথমবার কোনও বিশ্বকাপে মাঠে দর্শক আনতে চকম দিল ফিফা। যেখানে পঞ্চাশ টাকারও কম খরচ করলে টিকিট পাওয়া যাবে। বিশ্বকাপের ফাইনাল সহ দশটা ম্যাচ হবে যুবভারতীতে। ফাইনাল সহ দশটি ম্যাচের সিজন টিকিটে বিশেষ ছাড় ফিফার । সেক্ষেত্রে সর্বাধিক ষাট  শতাংশ ছাড় পাওয়া যাবে সিজন টিকিটের ওপর। মোট তিনটে ধাপে সিজন টিকিটের দাম স্থির করা হয়েছে। ৪৮০, ৯৬০ ও এক হাজার নশো কুড়ি টাকাটা করে খরচ করলে সিজিন টিকিট পাওয়া যাবে। যার ফলে যথাক্রমে ৪৮, ৯৬ ও ১৯২ টাকা খরচ করলে প্রতি ম্যাচে একটা করে টিকিট পাওয়া যাবে। সাতই জুলাই পর্যন্ত অন লাইনে দশটা ম্যাচের  সিজিন টিকিট কিনতে পারবেন ফুটবল ভক্তরা।

ভিডিও গ্যালারী

  ত্রিপুরা ফোকাস  । © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ত্রিপুরা ফোকাস ২০১০ - ২০১৭

সম্পাদক : শঙ্খ সেনগুপ্ত । প্রকাশক : রুমা সেনগুপ্ত

ক্যান্টনমেন্ট রোড, পশ্চিম ভাটি অভয়নগর, আগরতলা- ৭৯৯০০১, ত্রিপুরা, ইন্ডিয়া ।
ফোন: ০৩৮১-২৩২-৩৫৬৮ / ৯৪৩৬৯৯৩৫৬৮, ৯৪৩৬৫৮৩৯৭১ । ই-মেইল : This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.