সেনা অফিসার আজমল হক ইস্যুতে পিছু হঠল অসম সরকার

চাপের মুখে পিছু হটল অসম সরকার। ভুল করে মহম্মদ আজমল হককে নাগরিকত্বের প্রমাণ দেওয়ার নোটিশ পাঠানো হয়েছিল বলে দাবি করল পুলিস। তিরিশ বছর চাকরি করার পর অবসরপ্রাপ্ত সেনা অফিসার মহঃ আজমল হককে ডি-ভোটারের তালিকায় ফেলে দেওয়ায় গোটা দেশে শুরু হয় প্রবল সমালোচনা। সোশ্যাল মিডিয়ায় নিন্দার ঝড় বয়ে যায়। প্রাক্তন অফিসারের পাশে দাঁড়ায় সেনাও। চাপের মুখে অসম পুলিসের দাবি, কালাহিকাস গ্রামের বাসিন্দা অন্য এক মহম্মদ আজমল হককে পাঠানো নোটিশ ভুল করে প্রাক্তন সেনা অফিসারের কাছে পৌছে যায়। একই গ্রামে এক নামে দু-জন থাকাতেই নাকি এই বিপত্তি। ঘটনায় তিনি অত্যন্ত অপমানিত হয়েছেন বলে জানান প্রাক্তন সেনা অফিসার।