ত্রিপুরা ফোকাস

No result ..

জাতীয়

মুগলসরায়য়ের নাম বদল হল

বদলে গেল উত্তরপ্রদেশের মুগলসরায় স্টেশনের নাম। শনিবার দীনদয়াল উপাধ্যায়ের নামে ওই স্টেশনের নামকরণ করা হল। ১৯৬৮ সালে জনসঙ্ঘের নেতা দীনদয়াল উপাধ্যায়ের মৃত্যু হয়েছিল ওই স্টেশনেই। তাঁর নামে স্টেশনের নামকরণের প্রস্তাব দিয়েছিল যোগী আদিত্যনাথের সরকার। সমালোচনায় সরব হয়েছিল বিরোধীরা। উত্তরপ্রদেশ সরকার যুক্তি দিয়েছিল, মুগলসরায় স্টেশনে রহস্যজনকভাবে মৃত্যু হয়েছিল দীনদয়াল উপাধ্যায়ের। তাঁর স্মৃতিতে স্টেশনের নামকরণ করা হচ্ছে। যাত্রীদের সুবিধার কথা ভেবে রেলও রেকর্ডের পরিবর্তন করছে। বিরোধীদের দাবি, দেশের ইতিহাস বদলের চেষ্টা করছে গেরুয়া শিবির। এশিয়ার অন্যতম প্রাচীন রেল স্টেশন মুগলসরায়। হাওড়া-দিল্লির রেলপথের মাঝে ১৮৬২ সালে মুগলসরায় স্টেশনটি নির্মাণ করেছিল ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি। ওই স্টেশনের প্রস্তাবিত নাম পরিবর্তনে সবুজ সংকেত দেয় উত্তরপ্রদেশ সরকার। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক থেকে অনুমোদন পায় এই প্রস্তাব।

বলকানাইজেশনের পথে যাচ্ছে দেশটা, বক্তব্য প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জীর

সক্রিয় রাজনীতি থেকে অবসর নিয়েছেন পাঁচ বছর হয়ে গেল। কিন্তু তাঁর রাজনৈতিক মন তো ছুটি নেয়নি! ফলে জাত-পাত-ধর্ম এবং উগ্র জাতীয়তাবাদকে সামনে রেখে দেশ জুড়ে বিভাজনের বাতাবরণ যখন তীব্র হচ্ছে, তখন অস্থির হয়ে উঠেছেন সদ্য প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। এবং এ ব্যাপারে প্রণব এতটাই উতলা যে আসমুদ্র হিমাচলের মানুষকে সতর্ক করতে রীতিমতো প্রচারেও নামতে চাইছেন তিনি। রাষ্ট্রপতি পদে নির্বাচিত হওয়ার আগে আনুষ্ঠানিকভাবে রাজনীতি থেকে অবসর নিয়েছিলেন প্রণববাবু। রাইসিনায় তাঁর মেয়াদ গত জুলাইয়ে শেষ হয়ে গিয়েছে। এখন চাইলে ফের রাজনীতিতে ফিরতেই পারেন তিনি। এবং সে বিষয়ে কোনও সাংবিধানিক বাধাও নেই। তবে তেমন কোনও অভিপ্রায় না থাকলেও প্রায় পাঁচ দশকের পোড় খাওয়া রাজনীতিক মনে করছেন, তাঁর দায়বদ্ধতা শেষ হয়ে যায়নি। বিশেষত গোটা দেশে মেরুকরণের পরিবেশ যখন জাঁকিয়ে বসছে এবং তা ক্রমশ ভয়াবহ চেহারা নিচ্ছে, তখন হাত গুটিয়ে থাকা যায় না।

Read more...

ভিডিও গ্যালারী

  ত্রিপুরা ফোকাস  । © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ত্রিপুরা ফোকাস ২০১০ - ২০১৭

সম্পাদক : শঙ্খ সেনগুপ্ত । প্রকাশক : রুমা সেনগুপ্ত

ক্যান্টনমেন্ট রোড, পশ্চিম ভাটি অভয়নগর, আগরতলা- ৭৯৯০০১, ত্রিপুরা, ইন্ডিয়া ।
ফোন: ০৩৮১-২৩২-৩৫৬৮ / ৯৪৩৬৯৯৩৫৬৮, ৯৪৩৬৫৮৩৯৭১ । ই-মেইল : This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.