ত্রিপুরা ফোকাস

No result ..

জাতীয়

মাদ্রাসায় জাতীয় সংগীত গাওয়া নিয়ে ‌যোগী সরকারের পাশে হাইকোর্ট

মাদ্রাসায় জাতীয় সংগীত গাওয়া বাধ্যতামূলক। ‌যোগী আদিত্যনাথ সরকারের পাশে দাঁড়িয়ে জানিয়ে দিল এলাহাবাদ হাইকোর্ট। স্বাধীনতা দিবসের আগে একটি নির্দেশিকা জারি করেছিল উত্তরপ্রদেশ সরকার। প্রতিটি মাদ্রাসায় জাতীয় সংগীত গাওয়া এবং জাতীয় পতাকা তোলা বাধ্যতামূলক বলে নির্দেশিকায় জানানো হয়েছিল। ভিডিও তোলার নির্দেশও দিয়েছিল ‌যোগী সরকার। যোগী সরকারের এই নির্দেশের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন বিরোধীরা। তবে আদালত রাজ্য সরকারের পাশেই দাঁড়াল। সরকারের এই নির্দেশ বাতিলের দাবিতে হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছিল। সেই মামলাটি খারিজ করে দিল এলাহাবাদ হাইকোর্ট। টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনের দাবি, দারুল উল নাদওয়াতুল উলেমা মাদ্রাসা উত্তরপ্রদেশ সরকারের নির্দেশ মানেনি। তারা 'জনগণমন'-র পরিবর্তে 'সারে জাঁহা সে আচ্ছা' গেয়েছিল। সংস্থাটির দাবি, জাতীয় সংগীতে সিন্ধ কথাটি রয়েছে। ‌যেটি এখন পাকিস্তানের অংশ। এটা বাদ দিলেই তারা জাতীয় সংগীত গাইতে রাজি।

সেনা অফিসার আজমল হক ইস্যুতে পিছু হঠল অসম সরকার

চাপের মুখে পিছু হটল অসম সরকার। ভুল করে মহম্মদ আজমল হককে নাগরিকত্বের প্রমাণ দেওয়ার নোটিশ পাঠানো হয়েছিল বলে দাবি করল পুলিস। তিরিশ বছর চাকরি করার পর অবসরপ্রাপ্ত সেনা অফিসার মহঃ আজমল হককে ডি-ভোটারের তালিকায় ফেলে দেওয়ায় গোটা দেশে শুরু হয় প্রবল সমালোচনা। সোশ্যাল মিডিয়ায় নিন্দার ঝড় বয়ে যায়। প্রাক্তন অফিসারের পাশে দাঁড়ায় সেনাও। চাপের মুখে অসম পুলিসের দাবি, কালাহিকাস গ্রামের বাসিন্দা অন্য এক মহম্মদ আজমল হককে পাঠানো নোটিশ ভুল করে প্রাক্তন সেনা অফিসারের কাছে পৌছে যায়। একই গ্রামে এক নামে দু-জন থাকাতেই নাকি এই বিপত্তি। ঘটনায় তিনি অত্যন্ত অপমানিত হয়েছেন বলে জানান প্রাক্তন সেনা অফিসার।

ভিডিও গ্যালারী

  ত্রিপুরা ফোকাস  । © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ত্রিপুরা ফোকাস ২০১০ - ২০১৭

সম্পাদক : শঙ্খ সেনগুপ্ত । প্রকাশক : রুমা সেনগুপ্ত

ক্যান্টনমেন্ট রোড, পশ্চিম ভাটি অভয়নগর, আগরতলা- ৭৯৯০০১, ত্রিপুরা, ইন্ডিয়া ।
ফোন: ০৩৮১-২৩২-৩৫৬৮ / ৯৪৩৬৯৯৩৫৬৮, ৯৪৩৬৫৮৩৯৭১ । ই-মেইল : This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.