ত্রিপুরা ফোকাস

ত্রিপুরাবাসীর দীর্ঘদিনের স্বপ্ন বাস্তব রূপ পেলো

আগরতলা–‌কলকাতা ট্রেন চলাচল শনিবার সপ্তমী পুজোর দিন সকাল থেকে শুরু হয়েছে। ত্রিপুরাবাসীর দীর্ঘদিনের স্বপ্ন বাস্তব রূপ পেলো। শনিবার সপ্তমীর সকাল ৫ টা ১৫ মিনিটে আগরতলা স্টেশন ছাড়ে কাঞ্চনজঙ্ঘা। ১৫৬৬০ নম্বরের আগরতলা–‌শিয়ালদা কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস শনিবার এবং মঙ্গলবার সকালে আগরতলা ছাড়বে। রবিবার এবং বুধবার রাত ৭ টা ২৫ মিনিটে শিয়ালদা পৌঁছবে। ১৫৬৫৯ নম্বরের কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ট্রেনটি প্রত্যেক রবিবার এবং বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা ৩৫ মিনিটে শিয়ালদা থেকে ছাড়বে। আগরতলায় আসবে প্রত্যেক সোমবার ও শুক্রবার রাত ৯টায়। আগরতলা থেকে শিয়ালদা পর্যন্ত ১৫৫৬ কিমি। রেলের বাণিজ্য শাখার বক্তব্য অনুযায়ী, ৩৮ ঘণ্টা সময় লাগবে।

আগরতলা ছাড়া আমবাসা এবং ধর্মনগর স্টেশনে থামবে। রেল সূত্রে খবর, ২১টি কোচ নিয়ে চলবে এই এক্সপ্রেস ট্রেনটি। এতদিন গুয়াহাটি–‌শিয়ালদার মধ্যে যে কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস চলত সেটি আগরতলা পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। ২১ বগির এই এক্সপ্রেস ট্রেনে এসি টু টিয়ার ১টি, এসি থ্রি টিয়ার ৪টি এবং স্লিপার ক্লাস ৬টি থাকবে। এছাড়া ৪টি করে সাধারণ দ্বিতীয় শ্রেণীর চেয়ারকার এবং জেনারেল কোচ থাকবে। তবে বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত ভাড়া সংক্রান্ত কোনও তথ্য জানা যায়নি। শুক্রবার সকাল থেকে টিকিট দেওয়া হবে বলে রেল সূত্রে খবর। ধারণা করা হচ্ছে স্লিপার ক্লাসে আগরতলা–‌কলকাতা ভাড়া ৬৫০ টাকার আশপাশে থাকবে। আগরতলা থেকে গুয়াহাটির মাঝে ৬টি স্টেশনে ট্রেনটি থামবে। আমবাসা, ধর্মনগর, করিমগঞ্জ, বদরপুর, নিউ হাফলং, লামডিংয়ের পর গুয়াহাটি থামবে। ধর্মনগর যাবে ৩ ঘণ্টায়। গুয়াহাটি যাওয়া যাবে ১৭ ঘণ্টার কিছু বেশি সময়ে। রাজ্যের দীর্ঘদিনের আন্দোলনের ফলে অবশেষে কলকাতা পর্যন্ত সরাসরি ট্রেন চালু হল বলে জানান পরিবহণ মন্ত্রী মানিক দে। তিনি আশা করেন, পর্যায়ক্রমে চেন্নাই, বেঙ্গালুরু–‌সহ দক্ষিণ ভারতের সঙ্গে সরাসরি ট্রেন পরিষেবা চালু হবে। এখন সপ্তাহে ২দিন ট্রেনটি চলবে। সি পি এম রাজ্য সম্পাদক বিজন ধর দাবি করেন, কলকাতা–‌  আগরতলার মধ্যে প্রতিদিন ট্রেন পরিষেবার।

ভিডিও গ্যালারী

  ত্রিপুরা ফোকাস  । © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ত্রিপুরা ফোকাস ২০১০ - ২০১৭

সম্পাদক : শঙ্খ সেনগুপ্ত । প্রকাশক : রুমা সেনগুপ্ত

ক্যান্টনমেন্ট রোড, পশ্চিম ভাটি অভয়নগর, আগরতলা- ৭৯৯০০১, ত্রিপুরা, ইন্ডিয়া ।
ফোন: ০৩৮১-২৩২-৩৫৬৮ / ৯৪৩৬৯৯৩৫৬৮, ৯৪৩৬৫৮৩৯৭১ । ই-মেইল : This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.