ত্রিপুরা ফোকাস

No result ..

রাজ্য

রোজভ্যালী চিটফান্ড সংস্থার মামলার তদন্তে সমাজকল্যাণমন্ত্রী বিজিতা নাথকে জেরা করলেন সিবিআই আধিকারিকরা

রোজভ্যালী চিটফান্ড সংস্থার মামলার তদন্তে আগেই নোটিশ ছিল, সমাজকল্যাণমন্ত্রী বিজিতা নাথকে জেরা করবেন সিবিআই আধিকারিকরা৷ বৃহস্পতিবার, সিবিআই আধিকারিকরা চলে যান মহাকরণে মন্ত্রীর চেম্বারে৷ দু’জন আধিকারিক মন্ত্রীর চেম্বারে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন৷ কেন্দ্রীয় তদন্তকারী আধিকারিকরা প্রায় এক ঘন্টা কথা বলেছেন মন্ত্রীর সাথে৷ তাদের মধ্যে কী কথা, আলোচনা হয়েছে সে সম্পর্কে কেউই স্পষ্ট করে বলতে চাননি৷ সিবিআই আধিকারিকরা মিডিয়ার সামনে মুখ খুলতে চাননি৷ মন্ত্রী বিজিতা নাথ জানান, সিবিআইকে সহযোগিতা করব বলে জানিয়েছিলাম৷ সেই মত যে সমস্ত প্রশ্ন করা হয়েছে তার উত্তর দেওয়া হয়েছে৷ মন্ত্রী বিজিতা নাথের মহকুমায় রোজভ্যালীর কাজকর্ম সম্পর্কে সিবিআই আধিকারিকরা প্রশ্ন করেছিলেন বলে জানালেও এর অতিরিক্ত কোন জিজ্ঞাসা সিবিআইয়ের প্রশ্নমালায় ছিল কিনা সে সম্পর্কে তিনি কিছু বলতে চাননি৷ সমাজকল্যাণমন্ত্রী শ্রীমতি নাথ প্রচণ্ড ক্ষোভ প্রকাশ করেন, সিবিআইয়ের নোটিশ ফাঁস ইস্যুতে৷ শ্রীমতি নাথ সিবিআইয়ের কাছ থেকে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সিবিআই আধিকারিকরা বলেন, তাঁদের তরফ থেকে নোটিশ ফাঁস হয়নি৷ জানা যায়, আগামী দিনে আরও কয়েকজন প্রভাবশালী ব্যক্তিকে সিবিআই জেরা করতে পারে৷ এরমধ্যে শাসক দলের এমনকি বিরোধী রাজনৈতিক দলেরও দু’একজন থাকতে পারে৷

Read more...

শান্তি উন্নয়ন ব্যাহত করবেন না : মুখ্যমন্ত্রী

শহর আগরতলা, সংক্ষেপে তার অতীত ইতিহাস তুলে ধরলেন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার। পাশাপাশি তিনি রাজ্যে শান্তি ও উন্নয়নের পরিপন্থীদের উদ্দেশে বার্তা দিলেন, এমন পন্থা ও পদ্ধতি অবলম্বন করবেন না যাতে রাজ্যের উন্নয়ন বিঘ্নিত হয়। মঙ্গলবার বিকেলে আগরতলা লেনিন সরণিতে নবনির্মিত দ্বিতল শিশু উদ্যান বিপণি বিতানের উদ্বোধন করে এ কথা বলেন তিনি। এই বাড়ি নির্মাণের পেছনের ইতিহাস টেনে ভবিষ্যতে গোটা এলাকার পরিকল্পনার কথাও জনগণের সামনে তুলে ধরেন তিনি। উজ্জয়ন্ত চক করার পরিকল্পনা নিয়ে রবীন্দ্র শতবার্ষিকী ভবন চত্বর থেকে মহিলা মহাবিদ্যালয়, আবার তুলসীবতী স্কুল থেকে জ্যাকসন গেট হয়ে পুরনো মিউনিসিপাল অফিস পর্যন্ত গোটা এলাকার রাস্তা প্রশস্ত করা হবে। যাতে আখাউড়া দিয়ে বাংলাদেশ থেকে পণ্যবাহী গাড়ি সোজা এই পথে আসা–‌যাওয়া করতে পারে। মুখ্যমন্ত্রী এও বলেন, শিশু উদ্যান–‌সহ বিবেক উদ্যানকেও ঢেলে সাজা হচ্ছে। শিশু উদ্যানের পশ্চিম দিকের ব্যবসায়ীরা নতুন বাড়িতে চলে আসার পর এই রাস্তাটিও চওড়া করা হবে। রাজবাড়িটি–‌সহ গোটা এলাকা নিয়েই হবে উজ্জয়ন্ত চক। দেশ–‌বিদেশেও এই ধরনের চক রয়েছে। তবে সেখানে কোনও পার্কিং থাকবে না।

Read more...

সংবাদপত্র থেকে জিএসটি প্রত্যাহার দাবি

সিপিআইএম রাজ্য কমিটি সংবাদপত্র থেকে জিএসটি প্রত্যাহারের দাবি জানালো। সাংবাদিক বৈঠকে সিপিআইএম মুখপাত্র বলেন, সংবাদপত্র কোনদিন ট্যাক্সের আওতায় ছিলো না। ১লা জুলাই থেকে সারা দেশে জিএসটি চালু হচ্ছে।

সংবাদপত্রকেও জিএসটি-র অধীনে নিয়ে আসা হয়েছে। বিজ্ঞাপন উপর, নিউজপ্রিন্ট পরিবহনের উপর করারোপ হচ্ছে। এমনকি সংবাদপত্র বিক্রেতাদের উপর ১৮ শতাংশ হারে করারোপ করা হচ্ছে।এতে সংবাদপত্র শিল্পের ব্যাপক ক্ষতি হবে। সংবাদপত্র প্রতিষ্ঠান ও কর্মীরা এতে ভয়ানক ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। 

সিপিআইএম মুখপত্র গৌতম দাশ অবিলম্বে সংবাদপত্রের উপর থেকে জিএসটি প্রত্যাহারের দাবি জানান।

শুরু হল পঞ্চনীড় আয়োজিত ককবরকে রবীন্দ্রগানের কর্মশালা

আজ থেকে শুরু হল পঞ্চনীড় আয়োজিত ককবরকে রবীন্দ্রগানের কর্মশালা। চলবে আজ এবং ১ ও ২ জুলাই। মোট ৮ জন প্রশিক্ষক, ১০টা গান শেখাবেন। ৫০ জন ছাত্র ছাত্রী এই কর্মশালায় যোগদান করেছেন।

পঞ্চনীড়-র গত ৮ এপ্রিল ২০১৬ থেকে পথ চলা শুরু করে। পঞ্চকবির গান, ভাবধারা মানুষের কাছে পৌঁছে দেবার উদ্দেশ্য নিয়ে পঞ্চনীড়-র পথ চলা। সে প্রয়াসেই ককবরক ভাষীদের কাছে রবীন্দ্রনাথের গান, ভাবনা পৌঁছে দেবার জন্য এই কর্মশালার উদ্যোগ। যখন চারিদিকে জাতিতে-জাতিতে বিভেদ, ধর্মে-ধর্মে বিভেদ, ভারতীয় সংস্কৃতি ধংস করে দেবার চেষ্টা যখন সক্রিয় হয়ে উঠেছে, ঠিক তখনই পঞ্চনীড় তার সামান্য পরিসরে রবীন্দ্র ভাবনাকে অন্য ভাষাভাষীদের কাছে পৌঁছে দেবার উদ্যোগ নিয়েছে বললেন, পঞ্চনীড়ের বরিষ্ঠ কর্মকর্তা শুভঙ্কর চৌধুরী।

তিনি সাক্ষাৎকারে আরো বলেন, রবীন্দ্রনাথের ঐক্যের ভাবনা, মিলনের ভাবনা হয়ত পারবে, বিভেদের রাজনীতির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে। সে ইচ্ছেকে সাথী করেই পঞ্চনীরের এগিয়ে চলা। আশাকরি সবাই এগিয়ে এলে বিভেদের বিষবাস্প থেকে দেশকে বাঁচানো যাবে।

বিজেপি-সিপিআইএম-র মধ্যে সংঘর্ষে আহত ১৭, উত্তপ্ত অমরপুর

বিজেপি ও সিপিআইএম-র মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটল অমরপুরের নতুনবাজারে। বিষয় মাছের পোনা বিতরণে অনিয়ম। ঘটনায় পুলিশ সহ দু'দলের ১৭ জন অহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন পুলিশ সুপার ও এসডিপিও। খবর, নতুনবাজার থানা এলাকার খেদারনাল পঞ্চায়েতে মাছের পোনা বিতরণ নিয়ে স্থানীয় বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা জিজ্ঞাসা বাদ করেন পঞ্চায়েত সচিবকে। তা থেকে চরম বাকবিতন্ডা শুরু হয়ে যায়। একথা জানতে পেরে স্থানীয় সিপিআইএম কর্মী-সমর্থকরা পঞ্চায়েতে যেতেই দু'পক্ষে গোলমাল শুরু হয়। পরে বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা মারধরের অভিযোগ এনে দোষীদের গ্রেফতারের দাবীতে অমরপুর-নতুনবাজার সড়ক অবরোধ করে। এতে দেখা দেয় চরম উত্তেজনা। খবর পেয়ে গোমতী জেলার পুলিশ সুপার ও মহকুনার পুলিশ আধিকারিক ঘটনাস্থলে গিয়ে পথ অবরোধ তুলে নিতে অনুরোধ জানান এবং দোষীদের বিকেলের মধ্যে গ্রেফতার করা হবে বলে প্রতিশ্রুতি দেন। পথ অবরোধ তুলে দিয়ে বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা থানার উদ্দেশ্যে মিছিল করে যেতে থাকে। পাল্টা মিছিল বের হয় সিপিআইএম-র। দু'পক্ষের মিছিল পুলিশ গতিরোধ করে দিতে পরিস্থিতি ভয়ানক রূপ নেয়। সমানে ইট বৃষ্টি ও ভাঙচুর চলে। দুপক্ষ সম্মুখ সমরে লিপ্ত হয়ে পড়ে। পরিস্থিতি চরম আকার নেয়ায় টিএসআর বাহিনী নামাতে হয়। ঘটনার পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে কড়া পুলিশী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে খবর রয়েছে। অমরপুর মহকুমা জুড়ে এ ঘটনা ঘিরে পরিস্থিতি উদ্বেগজনক।

ভিডিও গ্যালারী

  ত্রিপুরা ফোকাস  । © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ত্রিপুরা ফোকাস ২০১০ - ২০১৭

সম্পাদক : শঙ্খ সেনগুপ্ত । প্রকাশক : রুমা সেনগুপ্ত

ক্যান্টনমেন্ট রোড, পশ্চিম ভাটি অভয়নগর, আগরতলা- ৭৯৯০০১, ত্রিপুরা, ইন্ডিয়া ।
ফোন: ০৩৮১-২৩২-৩৫৬৮ / ৯৪৩৬৯৯৩৫৬৮, ৯৪৩৬৫৮৩৯৭১ । ই-মেইল : This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.