ত্রিপুরা ফোকাস

No result ..

রাজ্য

শীঘ্রই রাজ্যের রেলে জুড়তে চলেছে পণ্যবাহী মালগাড়ি

শীঘ্রই রাজ্যের রেলে জুড়তে চলেছে পার্সেল ভ্যান অর্থাৎ পণ্যবাহী মালগাড়ি। সমস্ত কাজ শেষ। সীমান্ত রেলের সম্মতিও পাওয়া হয়ে গেছে। রেলের বাণিজ্য শাখা ব্যবসায়ীদের আনুষ্ঠানিক আমন্ত্রনও জানিয়েছে। সপ্তাহে একটি পার্সেল ভ্যান আগরতলা আসবে বলে জানা যায়।  রেলের বাণিজ্য শাখা ও ব্যাবসায়ীদের মধ্যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়ে গেলে দিন ২০-র মধ্যে পার্সেল ভ্যানের চলাচল শুরু হয়ে যাবে বলে রেল সূত্রে খবর। আরো জানা যায়, এরফলে নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী  ও অন্যান্য জিনিসপত্র দ্রুত রাজ্যে নিয়ে আসা সম্বব হবে।

রাজ্যপাল তথাগত রায়ের বিতর্কিত টুইটের কড়া প্রতিক্রিয়া সিপিআইএম-র

রাজ্যপাল তথাগত রায়ের বিতর্কিত টুইটের কড়া প্রতিক্রিয়া জানাল সিপিএম। দেশদ্রোহী মন্তব্যর জন্য ত্রিপুরার রাজ্যপাল পদ থেকে তথাগত রায়কে যাতে রাষ্ট্রপতি অপসারিত করেন সেই দাবি জানিয়েছেন রাজ্য সম্পাদক বিজন ধর। আদালত যাতে ফৌজদারি দণ্ডবিধিতে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা নিয়ে তথাগত রায়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয় সেই দাবিও করেছে সিপিএম। রাজ্যপালের চাঞ্চল্যকর মন্তব্যে সোশ্যাল মিডিয়াতেও নিন্দার ঝড় উঠেছে। জনসংঘের প্রতিষ্ঠাতা এবং বিজেপি–র অগ্রদূত শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জির উদ্বৃতি দিয়ে ১৮ জুন দুপুরে বিতর্কিত টুইট করেছিলেন রাজ্যপাল তথাগত রায়। ‘‌গৃহযুদ্ধ’‌ ছাড়া হিন্দু–মুসলিম সমস্যার সমাধান সম্ভব নয়। এমনই বিতর্কিত মন্তব্য শ্যামাপ্রসাদের ডায়েরির পাতা থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন প্রাক্তন এই বিজেপি নেতা। বিতর্কের ঝড় ওঠে টুইটারেও। রাজ্যপালের পদে বসে এভাবে সাম্প্রদায়িক তাস খেলার নিন্দায় সরব গোটা দেশ।একাধিক সংবাদমাধ্যমে খবর হয় রাজ্যপালের চাঞ্চল্যকর সাম্প্রদায়িক বিভেদমূলক টুইট। বিতর্কিত এই টুইটের জবাব দিতে গিয়ে সিপিএম রাজ্য সম্পাদক বিজন ধর বলেন, একটা কোটেশন কোট করা হয় নিজের মতের সঙ্গে মিললে। পছন্দের বক্তব্যকে জোরালো করা হয় কারও মন্তব্যকে কোট করে। সেটাই করেছেন তথাগত রায়। রাজ্যপাল টুইটে যা বলেছেন তা ভয়ঙ্কর বিপজ্জনক।

Read more...

তেলিয়ামুড়া ডিগ্রি কলেজে ছাত্র ভর্তি প্রক্রিয়া ঘিরে রাজনৈতিক উত্তেজনা ও সংঘর্ষ শুরু

রাজ্যের সাধারণ ডিগ্রি কলেজগুলিতে ছাত্র ভর্তির প্রক্রিয়া শুরু হতেই রাজনৈতিক উত্তেজনা ও সংঘর্ষ শুরু হয়ে গেছে। তেলিয়ামুড়া ডিগ্রি কলেজে ভর্তির ফর্ম সংগ্রহকে কেন্দ্র করে তেলিয়ামুড়ার পরিস্থিতি রণক্ষেত্রের রূপ নিয়েছে। বুধবার এ নিয়ে বিজেপি-র ডেপুটেশন ঘিরে রণক্ষেত্র হয় তেলিয়ামুড়া। খবর, বিজেপির-র মিছিল আটকে দিয়ে পুলিশের নির্দেশে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা মিছিলে লাঠি চার্জ করে। তেলিয়ামুড়া থানায় তখন উপস্থিত ছিলেন জেলার পুলিশ সুপার। লাঠি চার্জে অন্তত ১০ জন আহত হন। ১ জনকে জিবি হাসপাতালে পাঠানো হয়। ঘটনায় বিজেপি দীর্খ ২ ঘন্টা জাতীয় সড়ক অবরোধ করে। লাঠি চার্জের ঘটনার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তদন্ত এবং কলেজে এবিভিপি-র উপর হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানায় বিজেপি। ঘটনার পর তেলিয়ামুড়া জুড়ে আতঙ্কের পরিবেশ পরিবেশ লক্ষ্যণীয়।প্রদেশ বিজেপি নেতৃত্ব বিনা প্ররোচনায় তাদের মিছিলের উপর লাঠি চার্জ কেন হল জানতে চাইলে জেলা পুলিশ সুপার কোনও সঠিক জবাব দিতে পারেন নি। অবশেষে বিজেপির দাবি মেনে ঘটনার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তদন্ত এবং কলেজে এবিভিপি-র উপর হামলাকারীদের ২৪ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতারের প্রতিশ্রুতি দেন। 

সরকারী চাকুরীর দাবীতে আন্দোলনমুখী হচ্ছে বেকার যুবক যুবতীরা

জিএনএম নার্সিং পাশ করা বেকার যুবক যুবতীরা এবারে সরব হলেন৷ তিনটি ব্যাচ পাশ করে বসে রয়েছে দীর্ঘদিন ধরে৷ স্বাস্থ্য দপ্তরের তরফ থেকে কোন নিয়োগ প্রক্রিয়ার তদ্বিরতা নেই৷ এই অভিযোগ এনে মঙ্গলবার জিএনএম কোর্স করা বেকার যুবক যুবতীরা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী বাদল চৌধুরীর বাড়ির সামনে গিয়ে ধর্ণা দেয়৷ পরে মন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করে দাবী সনদ তুলে দেওয়া হয়৷ তাদের বক্তব্য বিভিন্ন হাসপাতালে শূন্যপদ থাকলেও নিয়োগ করা হচ্ছে না কেন৷ তাদের এই বক্তব্যের প্রেক্ষিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাদল চৌধুরী বলেন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে৷

ত্রিপুরা সরকারি কর্মচারীদের বাড়ছে বেতন, মিলবে চতুর্থ শনিবারেও ছুটি

বেসিকের উপর ২.২৫ হারে বৃদ্ধি করা হচ্ছে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বেতন। এরফলে রাজ্য সরকারের কোষাগার থেকে প্রতি বছরে অতিরিক্ত খরচ হবে ১২৪২ কোটি টাকা। এরফলে একজন গ্রুপ ডি কর্মচারীর বেতন বাড়বে ন্যূনতম চার হাজার টাকা, যেখানে গ্রুপ এ কর্মচারীদের বেতন বাড়বে ন্যূনতম পনেরো হাজার টাকা। একই হারে বাড়বে পেনশনার ও বিভিন্ন ভাতা'র অনুদান। মঙ্গলবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনুমোদিত হলো ত্রিপুরা সরকারি কর্মচারীদের জন্য এই নতুন বেতনক্রম। বেতন, ভাতা পুনর্বিন্যাসের মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত জানার পরই রাস্তায় নেমে এলেন শিক্ষক, কর্মচারী, অফিসাররা। খুশির আবহাওয়া। অভিনন্দনের মিছিলের বান শহরে তথা গোটা রাজ্যে। মঙ্গলবার অফিস ছুটির পর আগরতলা–সহ রাজ্যের সর্বত্র পথে নেমেই সরকারকে অভিনন্দন জানিয়ে মিছিল করলেন শিক্ষক–কর্মচারীরা। ত্রিপুরা কর্মচারী সমন্বয় কমিটি (‌এইচ বি রোড)‌–র ডাকে মূলত হয় অভিনন্দন জানিয়ে মিছিল সভা।

Read more...

ভিডিও গ্যালারী

  ত্রিপুরা ফোকাস  । © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ত্রিপুরা ফোকাস ২০১০ - ২০১৭

সম্পাদক : শঙ্খ সেনগুপ্ত । প্রকাশক : রুমা সেনগুপ্ত

ক্যান্টনমেন্ট রোড, পশ্চিম ভাটি অভয়নগর, আগরতলা- ৭৯৯০০১, ত্রিপুরা, ইন্ডিয়া ।
ফোন: ০৩৮১-২৩২-৩৫৬৮ / ৯৪৩৬৯৯৩৫৬৮, ৯৪৩৬৫৮৩৯৭১ । ই-মেইল : This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.